ঢাকা মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৬, ২০১৮



তৈরি পোশাকের চাহিদা বাড়াবে সবুজ প্রযুক্তির কারখানা

ডেস্ক রিপোর্ট: তৈরি পোশাকের মূল্য বাড়াতে বড় ধরনের সহায়তা হতে পারে সবুজ প্রযুক্তির কারখানা। এ ধরনের কারখানায় উৎপাদিত পোশাকের প্রতি ক্রেতাদের আগ্রহ রয়েছে। ফলে বাড়তি মূল্যের দরাদরিতে উদ্যোক্তা এগিয়ে থাকবেন। এ ধরনের কারখানা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে স্বল্পমেয়াদে খরচ বাড়লেও দীর্ঘমেয়াদে সুফল মিলবে।

তৈরি পোশাকের সবুজ প্রযুক্তি সংক্রান্ত এক কর্মশালায় গতকাল বৃহস্পতিবার এসব কথা বলেছেন বক্তারা। ‘বাংলাদেশের পরিবেশবান্ধব পোশাক কারখানার সক্ষমতা বৃদ্ধিতে কাঠামোর উন্নয়ন’ শীর্ষক এক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। তৈরি পোশাকের নিট খাতের উদ্যোক্তাদের সংগঠন বিটিএমএ এ কর্মশালার অয়োজন করেছে। রাজধানীর ডেইলি স্টার ভবনে এ কর্মশালায় ফ্রান্সের উন্নয়ন সংস্থা এজেন্সি ফ্র্যাঞ্চাইজি ডি ডেভেলপমেন্টের (এএফডি) দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফ্রান্সেজ নিকোলাস, বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু, বিকেএমইএর প্রথম সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ, সহ-সভাপতি ফজলে শামীম এহসান প্রমুখ বক্তব্য দেন। বিভিন্ন কারখানার প্রতিনিধি ছাড়াও উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরাও কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পোশাক উৎপাদনে ৮২ শতাংশ কারখানা ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবহার করছে। মাত্র ১৪ শতাংশ কারখানা পৌর কর্তৃপক্ষের পানি ব্যবহার করে। বাকি ২ থেকে ৩ শতাংশ কারখানা ভূউপরস্থ পানি ব্যবহার করে থাকে। একইভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারেও জেনারেটরনির্ভরতা বেশি। এতে পরিবেশের ওপর চাপ তৈরি হচ্ছে।

ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামের ৬২ কারখানার ওপর পরিচালিত জরিপের তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। এর মধ্যে বড় কারখানার পাশাপাশি মাঝারি ও ছোট আকারের কারখানাও রয়েছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও এএফডির সহযোগিতায় গবেষণা পরিচালনা করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সবুজ কারখানা নির্মাণে বড় সংকট হচ্ছে, অর্থায়নের অভাব, প্রযুক্তি সংকট ও ভূমির সমস্যা, দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার না থাকা ও পৃষ্ঠপোষকতার অভাব। এ সমস্যা মোকাবেলার জন্য প্রশিক্ষণ, অর্থায়ন, দেশে আন্তর্জাতিক মানের গ্রিন বিল্ডিং কাউন্সিল গড়ে তোলার সুপারিশ করা হয়।

আলোচনায় ফ্রান্সেজ নিকোলাস বলেন, গত বছর ফ্রান্স ২৪০ কোটি ইউরোর পোশাক কিনেছে এ দেশ থেকে। পরিবেশবান্ধব কারখানায় এসব পোশাক উৎপাদন হলে রফতানি আয় আরও বাড়তে পারত। পরিবেশবান্ধব শিল্পের ইমেজ তৈরি হলে আগামীতে রফতানি আরও বাড়বে। ক্রেতাদের সঙ্গে দর কষাকষিতে এগিয়ে থাকবেন উদ্যোক্তারা। এ ধরনের কারখানা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে অর্থ সংকটের বিবেচনায় এএফডি বাংলাদেশে ৫ কোটি ডলার অর্থায়ন করবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

বাণিজ্য সচিব বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পরিবেশবান্ধব কারখানা এখন বাংলাদেশে। তার মতে বিশ্ব এখন সবুজায়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ফলে তৈরি পোশাকের বিদেশি ক্রেতাদের চাহিদা মেটাতে সবুজ প্রযুক্তিতে যাওয়ার কোনো বিকল্প নেই।

বিকেএমইএর প্রথম সহসভাপতি বলেন, এ প্রতিবেদনের ফলাফল উদ্যোক্তা ও সরকারকে এ সংক্রান্ত পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে সহায়তা করবে। উদ্যোক্তাদের সামর্থ্য বৃদ্ধি এবং কারখানাকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করতে সহায়ক হবে। সংগঠনের সহসভাপতি বলেন, প্রাকৃতিক সম্পদ অপ্রতুল। তবে সবুজ প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারলে সীমিত সম্পদ দিয়েই সর্বোচ্চ উৎপাদন করা সম্ভব হবে।

 

সূত্র: সমকাল

Write a comment

Print Friendly, PDF & Email

এই বিভাগের আরও খবর


আর্কাইভ



error: Content is protected !!