ঢাকা মঙ্গলবার, নভেম্বর ২১, ২০১৭


চৈতী গ্রুপের পোশাক কারখানায় অ্যাকর্ডের সেফটি কমিটির প্রশিক্ষণ সম্পন্ন ও সনদ প্রদান

সোহেল রানা, ঢাকা : চৈতী গ্রুপের গার্মেন্টস ডিভিশনের একটি পোশাক কারখানায় সকল শ্রমিক ও সেফটি কমিটির সদস্যদের জন্য আয়োজিত প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘আশিক ড্রেস ডিজাইন লিমিটেড’ নামের চৈতী গ্রুপের এই কারখানায় শ্রমিকদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে শ্রমিক ও সেফটি কমিটিকে সাতটি ধাপে প্রশিক্ষণের আয়োজন করে বাংলাদেশের পোশাক কারখানার অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তায় ইউরোপিয়ান ক্রেতা জোট সংগঠন অ্যাকর্ড।  রবিবার (২৭ আগস্ট ২০১৭) প্রশিক্ষণ কর্মসূচির শেষ ধাপ অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, রাজধানীর চালাবন দক্ষিণখান এলাকায় অবস্থিত চৈতী গ্রুপের শতভাগ রপ্তানীমূখী এই পোশাক কারখানাটিতে “বাঁচার মতো বাঁচতে চাই, ঝুকিঁমুক্ত জীবন চাই” স্লোগানে অ্যাকর্ডের নিয়মানুসারে ১০ সদস্য বিশিষ্ট একটি সেফটি কমিটি গঠন করা হয়। জানুয়ারী মাস থেকে বিভিন্ন সময় সকল শ্রমিকদের অংশগ্রহণে দুটি ও শুধুমাত্র সেফটি কমিটির সদস্যদের নিয়ে সর্বমোট ৭ টি ধাপে কারখানার সকল শ্রমিক ও সেফটি কমিটিকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। আজ ছিল এর শেষ দিন। 

প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী দিনে প্রশিক্ষক ছিলেন অ্যাকর্ডের প্রশিক্ষক মি. মোঃ রাইয়ানুল হক ও মিস ইয়াসমিন মল্লিক।

চৈতী গ্রুপের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খন্দকার ওবায়দুল আহসান পি,এস,সি ( অবঃ) এর সভাপতিত্বে প্রশিক্ষণের সমাপনী ও সনদপত্র অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, অ্যাকর্ডের হেড অব ট্রেনিং মি. মাইকেল ব্রাইড ও ট্রেনিং কোয়ালিটি এন্ড লজিস্টিকস ম্যানেজার মিস. শামীম নওশীন। 

এসময় সফলভাবে প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করায় সেফটি কমিটির সদস্যদের মাঝে অ্যাকর্ডের পক্ষ থেকে সনদপত্র প্রদান করা হয়। 

উল্লেখ্য যে, আশিক ড্রেস ডিজাইন লিঃ  অ্যাকর্ড দ্বারা অগ্নি, বিদ্যুতিক ও কাঠামোগত নিরিক্ষীত। প্রায় দুই বছর আগে কারখানাটির কাঠামোগত সকল নিরীক্ষা করেছে অ্যাকর্ড। অতি অল্প সময়ে অ্যাকর্ডের প্রতিবেদন অনুযায়ী অগ্নি ও বৈদ্যুতিক সকল সংশোধনী সম্পন্ন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। 

Write a comment

এই বিভাগের আরও খবর

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

Like us on Facebook