ঢাকা মঙ্গলবার, নভেম্বর ২১, ২০১৭


গাজীপুরে বয়লার বিস্ফোরণ: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩

ডেস্ক রিপোর্ট : গাজীপুরের কোনাবাড়ী নয়াপড়া এলাকায় মাল্টিফ্যাব লিমিটেড পোশাক কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৩। এর মধ্যে ১১ জনের পরিচয় নিশ্চিত করার পর ১০ জনের লাশ তাদের পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আক্তারুজ্জামান এ তথ্য জানিয়েছেন।

আক্তারুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে ভবনের ধংসস্তুপ থেকে আরও দুটি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট নিহতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৩।

সোমবার (৩ জুলাই) রাত ১২টা পর্যন্ত গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে আটটি লাশ পৌঁছানো হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জুলাই) ভোরে একটি এবং সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আরও একটি লাশ উদ্ধার করা হয়। এর আগে সোমবার রাতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সোলাইমান (৩০) নামের আরও একজন মারা গেছেন। তিনি বগুড়ার গাবতলী থানার মরিয়া গ্রামের মৃত লিয়াকত আলীর ছেলে। এছাড়া মঙ্গলবার (৪ জুলাই) বিকালে ধ্বংসস্তুপ থেকে আরও দুই জনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

আক্তারুজ্জামান জানান, নিহতদের মধ্যে ১১ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা হলেন— মাগুরার শালিখা থানার গোবরা গ্রামের আইয়ুর আলী সর্দারের ছেলে কারখানার ফায়ারম্যান আল আমিন হোসেন(৪০), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা গ্রামের সাগর আলী মীরের ছেলে কারখানার সহকারী প্রকৌশলী মুজিবুর রহমান(৫০), রাজবাড়ির গোয়ালন্দ থানার চরকাসনন্দ গ্রামের মনিন্দ্রনাথের ছেলে বিপ্লব চন্দ্র শীল(৩৬), বগুড়ার সোনাতলা থানার নামাজখালি গ্রামের শাহার আলীর ছেলে কারখানার বয়লার অপারেটর মাহবুবুর রহমান(২৫), চট্টগ্রামের মীরসরাই থানার ববনসুন্দর গ্রামের কারখানার বয়লার ইনচার্জ আব্দুস ছালাম(৩২), চাঁদপুরের সদরের মদনা গ্রামের বাচ্চু ছৈয়ালের ছেলে গিয়াস উদ্দিন ছৈয়াল(৩০)। চট্টগ্রামের কাটাছড়া বঙ্গনূর এলাকার লুৎফুল হকের ছেলে মুনসুরুল হক(৩৫), চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার ইছাখালী গ্রামের মৃত নূরুল মোস্তফা চৌধুরীর ছেলে আরশাদ হোসেন(৪০), নওগাঁ সদরের চরকরামপুর এলাকার আজিজুল হকের ছেলে আমিরুজ্জামান(৩৫) ও পটুয়াখালী বাউফল উপজেলার ইন্দ্রকোল গ্রামের কাশেম ফরাজীর ছেলে মাসুদ রানা(৩৫)।

এছাড়া সোমবার রাতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান সোলাইমান(৩০)। তিনি বগুড়ার গাবতলী থানার মরিয়া গ্রামের মৃত লিয়াকত আলীর ছেলে। বিস্ফোরণে হতাহতদের অধিকাংশই বয়লার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারী।

গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মাহমুদ হাসান জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত শনাক্ত করা ১১ জনের মধ্যে ১০ জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সৌজন্যে : বাংলা ট্রিবিউন

Write a comment

এই বিভাগের আরও খবর

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

Like us on Facebook