ঢাকা শনিবার, অক্টোবর ১, ২০২২



ব্লু ক্রিয়েশনস লিমিটেড এর অংশগ্রহণকারী কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশের স্বনামধন্য শতভাগ কমপ্লায়েন্ট ওয়াশিং কারখানা ব্লু ক্রিয়েশনস লিমিটেড এর অংশগ্রহণকারী কমিটির নির্বাচন আজ ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২  (শনিবার) অনুষ্ঠিত হয়। গত ২৬۔০১۔২০২২  ইং তারিখে নির্বাচন কমিশন গঠনের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী কমিটির নির্বাচন এর কার্যক্রম শুরু হয়। কারখানার মানব সম্পদ ও কমপ্লায়েন্স বিভাগের প্রধান জনাব মোঃ আবু সাঈদ কে প্রধান করে, শ্রমিকদের মধ্য থেকে তিন (০৩) জন ও মালিক পক্ষ থেকে দুই (০২) জনসহ সর্বমোট পাঁচ (০৫) সদস্য বিশিষ্ট একটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়। নির্বাচন পরিচালনা কমিটি ও ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের সহকারী পরিচালক জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান এর সরাসরি ও সার্বিক তত্ববধায়নের  মাধ্যমে উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হলো।

এর আগে ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত অফিস চলাকালিন সময়ে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির অস্থায়ী কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময়সীমা নির্ধারণ করে তফসিল ঘোষণা করা হয়েছিল । মনোনয়নপত্র প্রয়োজনীয় যাচাই-বাছাই, আপত্তি ও নিষ্পত্তি শেষে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি  ২০২২ ইং তারিখে প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয় এবং ১৭ ফেব্রুয়ারি  ২০২২ ইং তারিখে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

নির্বাচনী বিষয়ে কারখানায় কর্মরত সকল ভোটারদেরকে যোগ্য প্রার্থীকে ভোটদানে উৎসাহ দিতে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি, পোষ্টার ও বিভিন্ন সেকশন এবং ক্যান্টিনে ক্যাম্পেইন করে। আজ ২৬۔০২۔২০২২  ইং তারিখে সকাল ০৮ টা থেকে শুরু হয়ে বেলা ০৩ টা পর্যন্ত সুষ্ঠুভাবে কারখানায় ভোট গ্রহণ সমাপ্ত হয়।

কাখানার তৃতীয় তলায় সভা কক্ষে সকল প্রার্থীদের উপস্থিতিতে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি ভোট গণনার কাজ শুরু করে। কারখানার মোট ৬৫৮ জন  ভোটারের মধ্যে ৫৫৫  জন নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এর মধ্যে ১৮ টি ভোট বাতিল বলে বিবেচিত হয়। মোট ১৮ জন প্রার্থীর মধ্যে ০৭ জন প্রার্থীকে তফসিল অনুযায়ী নির্বাচিত ঘোষনা করা হয়। ০৭  জন নির্বাচিত প্রার্থীর মধ্যে ০৫  জন পুরুষ ও ০২ জন মহিলা নির্বাচিত হন। “পিপি গান মেশিন” প্রতীকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক  ভোট (মোট ১২১) পেয়ে মোছা: মেসতারা  শ্রমিক প্রতিনিধি হিসাবে নির্বাচিত হন।

নির্বাচন চলাকালীন সময়ে শ্রমিকদের মধ্যে ব্যপক উৎসাহ উদ্দিপনা লক্ষ্য করা যায়। ভোটাররা জানান, শ্রম আইন অনুযায়ী যথাযথ সুযোগ সুবিধা পাওয়া, শ্রমিকগণের দাবী, অভিযোগ ও পরামর্শ যথাযথ ভাবে কতৃপক্ষের কাছে তুলে ধরা এবং গুনগত মান সম্পন্ন পণ্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে এ কমিটি অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। এই সময় প্রার্থীরা কারখানা সঠিক ও সুশৃঙ্খলভাবে পরিচালনার ক্ষেত্রে এই কমিটির মাধ্যমে সর্বাত্বকভাবে কাজ করে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করে।

এ প্রসঙ্গে কারখানার মহা ব্যবস্থাপক জনাব রাজু আহমেদ রাজন এর  সাথে কথা হলে তিনি জানান, বিগত কমিটিও অনেক ভালো কাজ করেছে এবং আশা করছি এই কমিটির মাধ্যমে আমরা শ্রমিক-মালিকের স্বার্থ রক্ষাসাপেক্ষে একটি সুন্দর, নিরাপদ এবং পরিবেশবান্ধব প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারবো।

কারখানাটির সহ ব্যবস্হাপক (কমপ্লায়েন্স) শারমিন হক জানান, আমাদের কারখানায় এটা ৩য়  অংশগ্রহণকারী কমিটির নির্বাচন। পূর্বের কমিটি গুলোও দারুন কার্যকর ভূমিকা পালন করেছে। কমিটির পরামর্শগুলো প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদ অত্যন্ত গুরত্বের সাথে বিবেচনা করে ও এতে আমাদের শ্রমিক ভাই বোনেরাও অনেক খুশি থাকে, পাশাপাশি কারখানার কর্মপরিবেশও উন্নত হয়। আমরা আশা করছি গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচিত এই কমিটি শ্রমিক-মালিক উভয়ের স্বার্থ রক্ষা করে কারখানার সঠিক কর্মপরিবেশ আনয়ন এবং আইনানুযায়ী ও এর বাইরেও যাবতীয় সুবিধাদি সঠিক ভাবে প্রদান করতে সহায়তা প্রদান করবে।

Comments


আর্কাইভ