ঢাকা মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২৫, ২০২২



চট্টগ্রামে ৫ লাখ শ্রমিককে গণটিকার প্রথম ডোজ প্রদান

ডেস্ক রিপোর্ট: করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে চট্টগ্রামে বিজিএমইএ’র অন্তর্ভূক্ত সকল পোশাক কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদেরকে গণটিকার প্রথম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে রয়েছে। ইতোমধ্যে বিজিএমইএ’র তালিকাভুক্ত ৩৫০টি কারখানার প্রায় পাঁচ লাখ শ্রমিককে গণটিকার আওতায় আনা হয়েছে।

বিজিএমইএ’র প্রথম সহ-সভাপতি জনাব সৈয়দ নজরুল ইসলামের সার্বিক দিকনির্দেশনা ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহযোগীতায় এই গণটিকাদান কর্মসূচী বাস্তবায়িত হচ্ছে।

গতকাল ১৮ ডিসেম্বর, সকাল ১১টায় বিজিএমইএ’র সহ-সভাপতি রাকিবুল আলম চৌধুরী বাকলিয়া থানার রাজাখালী এলাকায়র দি নীড এ্যাপারেলস (প্রা.) লিমিটেডে চলমান শ্রমিকদের মাঝে টিকা প্রদান কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে দি নীড এ্যাপারেলস (প্রা.) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিয়াজ ওয়াজসহ বিজিএমইএ’র কর্মকর্তাগণ ও বিজিএমইএ হাসপাতালের মেডিকেল টীমের সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় জনাব রাকিবুল আলম চৌধুরী বলেন, “শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতকরণ ছাড়া কারখানা চলবে না। কারখানা না চললে দেশের অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব নয়। চট্টগ্রামে পোশাক কারখানা শ্রমিকদের সুরক্ষায় গত ২৩ নভেম্বর থেকে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তাই আমি চট্টগ্রামের বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ও চট্টগ্রামের সিভিল সার্জনকে ধন্যবাদ জানাই”।

এদিকে বিজিএমইএ’র প্রথম সহ-সভাপতি জনাব সৈয়দ নজরুল ইসলাম এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বিজিএমইএ’র তালিকাভুক্ত ৩৫০টি কারখানার প্রায় পাঁচ লাখ শ্রমিক গণটিকার আওতায় এসেছেন। সর্ব প্রথম চট্টগ্রামের গার্মেন্টস সেক্টরে এ গণটিকাদান কর্মসূচী গ্রহণে সহযোগিতা করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তাছাড়াও তিনি চট্টগ্রামের পোশাক শিল্পের মালিক-শ্রমিক সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

Comments


আর্কাইভ