ঢাকা শনিবার, মার্চ ২৩, ২০১৯



“সামাজিক কর্মকাণ্ডে বিশেষ অবদান রাখার জন্য সেরা সংগঠন হিসেবে বিসিপিএসকে সম্মাননা প্রদান”

নিজস্ব প্রতিনিধি: গতকাল ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার, বিকেক ২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ঢাকার শাহবাগস্থ কাঁটাবনের ‘কবিতা ক্যাফে’ অডিটরিয়ামে হয়ে গেলো ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্ত লেখক ও সংগঠন পুরস্কার ২০১৭-১৮ অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে ২০১৭-১৮ সালে বাংলাসাহিত্যের বিভিন্ন শাখায় প্রতিশ্রুতিশীল এবং প্রতিভাবান লেখকদের ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্ত লেখক পুরস্কার ২০১৭-১৮ প্রদান করা হয় ।

এছাড়াও ২০১৮ সালে সমাজসেবামূলক কার্যক্রমের বিশেষ অবদান রাখার জন্য বিসিপিএস সহ ৩ টি সামাজিক সংগঠনকে সেরা সংগঠন পুরুষ্কার ২০১৯ প্রদান করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে দেশের ১৮৬ জন জনপ্রিয় সাহিত্যিক উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে পুরস্কারপ্রাপ্তদের সম্মাননা সনদ, ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

সম্মাননা গ্রহণ করছেন বিসিপিএস এর সভাপতি জনাব নাঈম হোসেন।

অনুষ্ঠানটির শুভ উদ্বোধন করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য জাতিসত্তার কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। প্রধান অতিথি ছিলেন কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী (মহাপরিচালক, বাংলাএকাডেমি) বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত বরেণ্য কবি কাজী রোজী, বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত বরেণ্য কবি আসলাম সানী, বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত বরেণ্য কথাসাহিত্যিক মোহিত কামাল, বরেণ্য কবি আলমগীর রেজা চৌধুরী, বরেণ্য কবি সৈয়দ আল ফারুক, বরেণ্য কবি জুয়েল মাজহার, ড. শাহদাৎ হোসেন নিপু (বরেণ্য বাচিকশিল্পী, কবি এবং উপ-পরিচালক, বাংলা একাডেমি), বরেণ্য শিশুসাহিত্যিক হাসনাত আমজাদ, বরেণ্য কবি আতিয়ার রহমান, কানাই সরকার (গ্রুপ পরিচালক, মডেল গ্রুপ) এবং বরেণ্য প্রাবন্ধিক ড. শামস আলদীন (সহকারী অধ্যাপক, বাংলা বিভাগ, সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি)। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন কবি ফরিদুজ্জামান (প্রধান সম্পাদক, ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্ত)

২০১৮ সালে সামাজিক উন্নয়নে চমৎকার অবদান রাখার জন্য সাহিত্য দিগন্ত এবং Friends of Humanity Bangladesh এর পক্ষ হতে নিম্নোক্ত ৩টি সংগঠন, ২জন সংগঠক এবং ১টি সাহিত্য পত্রিকাকে ‘সাহিত্য দিগন্ত সংগঠক পুরস্কার-২০১৮’ প্রদান করা হয়।
সংগঠন
❑ বাংলাদেশ কমপ্ল্যায়েন্স প্রফেশনালস সোসাইটি-বিসিপিএস
❑ এক রঙ্গা এক ঘুড়ি
❑ বাতিঘর

বিসিপিএস এর পক্ষ থেকে পুরুষ্কার গ্রহন করেন বিসিপিএস এর সভাপতি জনাব নাঈম হোসেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিসিপিএস এর অন্যান্য কার্যনিরবাহী সদস্যগণ।

বিসিপিএস সভাপতি জনাব নাঈম হোসেন তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্তর প্রতি কৃজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন,”মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব, কারন মানুষ এবং অন্যান্য প্রানীদের মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে মানুষের আছে বিবেকবোধ, জ্ঞানবুদ্ধি,মানবতা। মানুষের আছে ভাল মন্দ বিচার করার ক্ষমতা। মানবতাবোধ থেকে এবং নিজের মনের ভাল লাগা থেকেই সমমনা কিছু সহযোদ্ধাদের নিয়ে বিসিপিএস মাধ্যমে মানবতার খাতিরে সৃষ্টির সেরাজীব মানুষের জন্য, বিশেষ করে সমাজের পিছিয়ে থাকা, সুবিধাবঞ্চিত, অসহায়,এতিম,দুস্থদের কল্যাণে কিছু করার জন্য এবং আমাদের নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী তাদের পাশে থাকার জন্য পন করি। সেই অনুযায়ী ২০১৪ সাল থেকেই বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী ছুটে গিয়েছি সমাজের সুবিধাবঞ্চিত, অসহায়, এতিমদের কাছে। অর্থ,খাবার,বস্ত্র, ঔষধের মাধ্যমে চেষ্টা করেছি তাদের পাশে থাকার জন্য।

এছাড়াও চেষ্টা করে যাচ্ছি, রাষ্ট্রের একজন সুনাগরিক হিসেবে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে নিজের অবস্থান থেকে সহযোগীতা করার জন্য । বিশেষ করে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের অন্যতম প্রধান বাধা বেকারত্ব। আর এই বেকারত্ব দূর করার জন্য ক্ষুদ্র পরিসরে নিজেদের পেশাগত অভিজ্ঞতা, জ্ঞানকে বিনামূল্যে শিক্ষত বেকারদের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে তাদেরকে দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত করে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিয়ে।

সবকিছুই করে যাচ্ছি নিজের মানবিকতাবোধ থেকে,মনের ভাল লাগা থেকে,কখনোই এর বিনিময়ে কিছু প্রাপ্তির আশা করিনি। কারন আমরা বিশ্বাস করি “মানুষের সেবা করার মাধ্যমেই সৃষ্টি কর্তার নৈকট্য লাভ করা যায় ” তারপরে যেকোন কাজে অন্যের উৎসাহ পেলে তা আরোও বেগবান হয়,কাজের ভাল মন্দ দিকগুলো বোঝা যায়।

আজকে ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্ত এর কাছ থেকে যে সম্মাননা পেলাম এতে আমাদের ভবিষ্যতে কাজের উৎসাহ আরো বেড়ে যাবে ইনশাআল্লাহ। কারন এখন মনে হচ্ছে আসলেই বিসিপিএস সমাজের সুবিধাবঞ্চিত, অসহায়, এতিমদের জন্য কিছু করতে পেরেছে।

অনেক অনেক ধন্যবাদ সাহিত্য দিগন্তকে বিসিপিএস এর মত অতি সামান্য একটা সংগঠনকে এত বড় সম্মাননা দেয়ার জন্য।
সাথে বিশেষ ধন্যবাদ জনাব জায়েদ হোসাইন লাকী কে।

ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্ত এর জন্য রইল অকৃত্রিম ভালবাসা, অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।

অকৃত্রিম ভালবাসা রইল বিসিপিএস সহযোদ্ধাদের প্রতি।”

জাঁকজমকপূর্ণ এই অনুষ্ঠানটি গ্রন্থন, পরিকল্পনা ও পরিচালনা করেন ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্ত পত্রিকার সম্পাদক জায়েদ হোসাইন লাকী। তার সাথে সহ-উপস্থাপনায় ছিলেন ফারজানা হক, ইয়াসমীন নীলুফার এবং হাবিবা মুসতারিন। অনুষ্ঠানটি সমন্বয় করেন সোনালী ইয়াসমীন। অনুষ্ঠানটি সার্বিক তত্ত্বাবধান করেন জাহাঙ্গীর হোসেন কবির (সহকারী সম্পাদক, ত্রৈমাসিক সাহিত্য দিগন্ত)

Write a comment

Print Friendly, PDF & Email

এই বিভাগের আরও খবর


আর্কাইভ



error: Content is protected !!