ঢাকা শুক্রবার, নভেম্বর ১৬, ২০১৮



৫১% বাড়িয়ে পোশাক খাতে ন্যূনতম মজুরি আট হাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক: শ্রমিকদের বিভিন্ন সংগঠন ১২ হাজার থেকে ১৬ হাজার টাকা ন্যূনতম মজুরি দাবি করলেও নিম্নতম মজুরি বোর্ড মাসে আট হাজার টাকা বেতন নির্ধারণ করতে যাচ্ছে। ডিসেম্বরে প্রজ্ঞাপর জারি করে এটি কার্যকর করা হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর তোপখানা সড়কে মজুরি বোর্ডের কার্যালয়ে মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে এক সভার পর শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে নতুন মজুরি কাঠামোর ঘোষণা দেন। শ্রম প্রতিমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি হবে আট হাজার টাকা। এর মধ্যে মূল বেতন ৪ হাজার ১০০ টাকা; বাড়ি ভাড়া দুই হাজার ৫০ টাকা এবং অন্যান্য এক হাজার ৮৫০। ঘোষিত মজুরি বর্তমান ন্যূনতম মজুরির চেয়ে ৫১ শতাংশ বেশি। এর আগে ২০১৩ সালের ১ ডিসেম্বর ৫ হাজার ৩০০ টাকা ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণ করে দেয় সরকার। এতদিন ধরে সেই হারে বেতন পাচ্ছিলেন পোশাক শ্রমিকরা।

সে সময় আগের নূন্যতম মজুরির তুলনায় প্রায় শতভাগ বেতন বেড়েছিল। আবার চলতি বছরই সরকারি শিল্প কারখানার শ্রমিকদের বেতন শতভাগ বাড়িয়ে নূন্যতম মজুরি করা হয় ৮৩০০ টাকা।

এবার মজুরি বোর্ড গঠনের পর শ্রমিক সংগঠনগুলো ন্যূনতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা দাবি করে আসছিলেন। তবে এর বিপরীতে পোশাক শিল্প মালিকরা ৬ হাজার ৩৬০ টাকার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

জানতে চাইলে নূন্যতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা করার দাবিতে আন্দোলন করা বাংলাদেশ সংযুক্ত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান বাবলু  বলেন, ‘আট হাজার টাকা মজুরি আমরা অবশ্যই মানব না। এটা কোনো যুক্তিতেই পড়ে না আমরা পরবর্তীতে আন্দোলনে যাব।’

Write a comment

Print Friendly, PDF & Email

এই বিভাগের আরও খবর


আর্কাইভ



error: Content is protected !!